১৬ই জুলাই, ২০১৮ ইং, সোমবার, ১লা শ্রাবণ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
  • প্রচ্ছদ » কসবা » বাউরখন্ড খেলার মাঠ মাটি ভড়াটের মাধ্যমে সংস্কারের দাবি



বাউরখন্ড খেলার মাঠ মাটি ভড়াটের মাধ্যমে সংস্কারের দাবি


প্রকাশিত :০৭.০৭.২০১৮, ৫:৩৩ অপরাহ্ণ

বাউরখন্ড খেলার মাঠ মাটি ভড়াটের মাধ্যমে সংস্কারের দাবি

উপজেলা কসবার ১নং মূলগ্রাম ইউনিয়ন বাউরখন্ড গ্রামের খেলার মাঠটি ক্রমাগত বেদখল হয়ে হারিয়ে যাচ্ছে। বছরের প্রায় ৭মাস খেলার অনুপযোগী হওয়ায় শিশু-কিশোরদের খেলার সুযোগ ক্রমান্বয়ে হ্রাস পাচ্ছে। খেলাধুলায় বিমুখী হয়ে উঠছে প্রজন্ম, রোবটের মতো যান্ত্রিকভাবে বড় হয়ে উঠছে তারা। সুষ্ঠু বিনোদনের ব্যবস্থা না থাকায় বিপথগামী হওয়ার আশঙ্কা সৃষ্টি হচ্ছে। প্রর্যাপ্ত ব্যবস্থা না থাকায় বাউরখন্ড থেকে হারিয়ে যাচ্ছে খেলাধুলার অভ্যাস ।আর এ সুষ্ঠু বিনোদনের ব্যবস্থা হারিয়ে যাওয়ায় সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে আমাদের ভবিষ্যৎ প্রজন্ম।

বাউরখন্ডে চিত্ত বিনোদনের জন্য খেলার মাঠ সঙ্কুচিত হয়ে পড়ায় যুব সমাজ বন্দি হয়ে পড়ছে অপসংস্কৃতির মায়া জালে। বছরের অধিকাংশ অবসর সময় খেলার সুযোগ না থাকায় তাদের সময় কাটাতে হচ্ছে ভিন্ন ভাবে।যুব সমাজ হয়ে পড়ছে টিভি-কম্পিউটার, ভিডিও গেমসনির্ভর। জড়িয়ে যাচ্ছে মাদকের সাথে। অবশিষ্ট ৫ মাস খেলার সুযোগ থাকলেও আগ্রহ হারাচ্ছে খেলাধুলার ।

১ হাজার ৫শত মানুষের এই গ্রামে খেলার মাঠ একটি।১নং ওয়ার্ডের ৪টি গ্রামের কেন্দ্রীয় মাঠ বলা চলে এটিকে। সরকারের সিটিজেন চার্টার অনুযায়ী শিশু-কিশোরদের বিনোদনের জন্য প্রতিটি গ্রামে একটি করে খেলার মাঠ থাকার কথা। বাউরখন্ড গ্রামে মাঠ আছে- খেলাধুলার পরিবেশ নাই। বর্ষায় তলিয়ে যাচ্ছে মাঠ, বৈশাখে ধান মালাইয়ের কাজে বব্যহার হচ্ছে এই মাঠ। মাঠ সংল্গনে প্রাইমারি স্কুলের শিক্ষার্থীরা বঞ্চিত হচ্ছে-খেলাধুলার পরিবেশ থেকে। শুধু তাই না গ্রীষ্মে তাদের ক্লাস করার পরিবেশ হারাচ্ছে মাঠ অব্যবস্থপনার কারনে। ক্লাস চলারকালিন সময় ঘন্টার ঘন্টার পর চলছে ধান মালাইয়ের “বুমা” মেশিন। গ্রামের চায়ের দোকান গুলোতে অবসর কাটচ্ছে গ্রামের মুরুব্বিদের। গ্রামে খেলার মাঠ থাকলেও এখন অবস্থা একেবারেই নাজুক।
দীর্ঘদিন যাবত দাবি জানিয়ে আসছে স্থানীয় ইউনিয়ন প্রতিনিধির কাছে বাউরখন্ডের মাঠে মাটি ভড়াটের মাধ্যমে ১২ মাস খেলার উপযুগি পরিবেশ তৈ্রি করার জন্য। কিন্তু দাবি বাস্তবায়ন হচ্ছে না বাউরখন্ডবাসীর।

মনোরোগ বিশেষজ্ঞদের মতে শিশুদের বেড়ে ওঠার জন্য খেলাধুলার প্রয়োজন। খেলার মাধ্যমে তাদের মগজে রক্তসঞ্চালন ভালো হয়। শৈশবে খেলার চর্চা না থাকলে শিশুদের আত্মবিশ্বাসের অভাব থেকে যায়। এ থেকে সহজেই তাদের পরাজয়বরণের মানসিকতা তৈরি হয়।
শিশু-কিশোরসহ যুবসমাজের অধিকার রক্ষাই শুধু নয়, বাউরখন্ডের স্বস্তিকর পরিবেশ বজায় রাখতেই পর্যাপ্ত উপযুক্ত স্থান থাকা দরকার।আর এই এই খেলার মাঠ একমাত্র উপযুক্ত স্থান। আশা করি বাউরখন্ডের ভবিষ্যৎ প্রজন্মকে ক্ষতির হাত থেকে বাঁচাতে যথাযথ কর্তৃপক্ষ জরুরি পদক্ষেপ গ্রহণ করবে।

আহবানে- স্বপ্ন যাত্রায় বাউরখন্ড



এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি
Designed By Linckon