৮ই নভেম্বর, ২০১৮ ইং, বৃহস্পতিবার, ২৪শে কার্তিক, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ



দক্ষিণ কোরিয়া ও উত্তর কোরিয়া একসাথে হাঁটছে


প্রকাশিত :২৭.০৪.২০১৮, ১০:১২ পূর্বাহ্ণ

দক্ষিণ কোরিয়া ও উত্তর কোরিয়া একসাথে হাঁটছে

আজ ২৭শে এপ্রিল কোরিয়া সময় সকাল ৯.২৭ মিনিটে সকল জল্পনা কল্পনা অবসান ঘটিয়ে দুই কোরিয়ার প্রধানের ঐতিহাসিক সাক্ষাত হয়ে গেলো এক আনন্দঘন পরিবেশে। পানমুজমে ঢুকে উত্তরের প্রেসিডেন্ট কিম জং উন নিজ হস্তে স্মারক লিখেন যাতে লিখেছেন “새로운 역사는 이제부터”라며 “평화의 시대, 역사의 출발점에서” ” নতুন ইতিহাস শুরু শান্তির যুগ, ইতিহাসের শুরু”
চলছে আলোচনা ..

সত্যিই শান্তি ফিরে আসুক পুরো দুনিয়া এমন শান্তিতে থাকুক এই আশায় আমরা।

দক্ষিণ কোরিয়ার রাষ্ট্রপতি মুন যে ইন এবং উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম জং উন দুইদেশের সীমান্ত লাইনে দাঁড়িয়ে একে অপরের প্রতি বন্ধুত্বের হাত বাড়িয়ে দিয়েছেন ।

শুধু চীন,অ্যামেরিকা বা জাপান নয় আজকের দিনে সমস্ত পৃথিবীর আজ প্রধান খবরের শিরোনাম জুরে আছে কোরিয়া উপদ্বীপ ।

দীর্ঘ ছয় দশকের যুদ্ধংদেহী মনোভাবের কারণে আজকের এই মিটিং সারা পৃথিবীর আগ্রহের কেন্দ্রে পরিণত হয়েছে ।

সেই সাথে অপেক্ষা করছে কাঁটাতারে বিচ্ছিন্ন কোরিয়া উপদ্বীপের প্রায় ৯ কোটি মানুষ….

আনুষ্ঠানিক বৈঠক শুরুর আগে মুন এবং কিম পানমুনজমে একটি প্লাজায় হেঁটে গেছেন এবং গার্ড অব অনার পরিদর্শন করেছেন।

আলোচনার শুরুতে উন্মুক্ত পর্বে দুই নেতা আলোচনায় অংশ নেন। আলোচনার শুরুতে দুই নেতা আলোচনা নিয়ে আশাবাদ প্রকাশ করেছেন।

প্রেসিডেন্ট কিম জং উন বলেন “গতবারের মত ( ২০০৭ সালের দ্বিপাক্ষিক চুক্তি) যত ভাল চুক্তিই হোক না কেন, যত ভাল ভাল কথা থাকুক না কেন, ঠিক মত কার্যকর না হলে এবং ভাল ফলাফল না আসলে, আশায় বুক বেঁধে থাকা জনগণ অনেক বেশ নিরুৎসাহিত হন”।

প্রেসিডেন্ট মুন জে ইন বলেন “আজকের আলোচনা মন খুলে আলোচনা হোক, একটা সমঝোতার মাধ্যমে আমাদের পুরো জাতি শান্তির যে আশা নিয়ে তাকিয়ে আছে তাদেরকে এবং পুরো বিশ্বকে একটা উপহার দিই”।

কোরিয়ান সময় দুপুর ১২টায় প্রথম পর্বের আলোচনা শেষ হয়েছে। দুপুরের খাবার গ্রহণ শেষে এই দুই নেতা সীমান্ত এলাকায় বৃক্ষ রোপণ অনুষ্ঠানে অংশ নেবেন। তার পর মুন এবং কিম দ্বিতীয় দফা বৈঠক করবেন এবং উত্তর কোরীয় প্রতিনিধিদলের বিদায়ী অনুষ্ঠানে আগে তারা নৈশভোজে মিলিত হবে।



এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি
Designed By Linckon