১৭ই অক্টোবর, ২০১৮ ইং, বুধবার, ২রা কার্তিক, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
  • প্রচ্ছদ » অন্যরকম » এক পুলিশের ফেসবুকে ষ্ট্যাটাস “সরি চাচ্চু তোমাকে বাঁচাতে পারলম না”



এক পুলিশের ফেসবুকে ষ্ট্যাটাস “সরি চাচ্চু তোমাকে বাঁচাতে পারলম না”


প্রকাশিত :১৫.০১.২০১৮, ৭:৩১ অপরাহ্ণ

এক পুলিশের ফেসবুকে ষ্ট্যাটাস “সরি চাচ্চু তোমাকে বাঁচাতে পারলম না”

ফেসবুকে এক পুলিশের ষ্ট্যাটাসের হেড লাইন এটা। যে ষ্ট্যাটাস এর শব্দগুলি আপনাকে কাঁদাবে। নিজের অজান্তেই আপনার চোখ দিয়ে পানি জরাবে। যে ফেসবুক ষ্ট্যাটাসটি দিয়েছে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার সরাইল সার্কেলে নিয়োজিত সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার মোঃ মনিরুজ্জামান ফকির। আজ সকালে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার আশুগঞ্জ থানার খড়িয়ালা গ্রামের ছোট্ট একটি বালক রিফাত, বয়স আনুমানিক ৭ বছর এর ব্যাগ বন্ধী লাশ উদ্ধার হয়। রিফাত এর পিতার নাম বাহার মিয়া, সাং- খড়িয়ালা, থানা- আশুগঞ্জ, জেলা- ব্রাহ্মণবাড়িয়া। রিফাতকে গত ৫ তারিখ থেকে খুঁজে পাচ্ছিল না তার পরিবার। পরিবার রিফাতকে খুজে পেতে ৬ তারিখ আশুগঞ্জ সহ আশপাশের এলাকায় মাইকিং করে। তারপর ৭ তারিখে রিফাত হারিয়ে যাওয়ার ব্যাপারে থানায় একটি জিডি করে। মামলা জিডি নং- ২৪৩, আশুগঞ্জ থানা। ৮ তারিখে একটি অজ্ঞাতনামা মোবাইলের কল থেকে ৫০,০০০/- টাকা মুক্তিপণ দাবী করে। অজ্ঞাতনামা ব্যক্তিদের দেওয়া একটি মোবাইল এ বিকাশ নম্বরের মাধ্যমে ৩০,০০০/- টাকা মুক্তিপণ দেয় রিফাত এর পরিবার। তারপরও রিফাতকে ফেরত পায় নি তার পরিবার। তারপর বিষয়টি আশুগঞ্জ থানা পুলিশ জানতে পেরে বিকাশ এর নম্বর দেওয়ার পরিপ্রেক্ষিতে কয়েকটি জেলায় অভিযান চালিয়ে এক সপ্তাহের মধ্যে দু’জন আসামী গ্রেফতার করে। আসামী গণের নাম ঃ সোহাগ মিয়া (২৪), পিতা- সিদ্দিকুর রহমান, সাং- দক্ষিণ মালিক খালি, পাথরঘাটা, বরগুনা ও সোলেমান (২২), পিতা- আনছার আলী, সাং- হেতালবুনিয়া, থানা- কাঠালিয়া, জেলা- ঝালুকাঠি। তবুও শেষ রক্ষা হয় নি। আজ সকাল আনুমানিক ৮:৩০ মিনিটে আশুগঞ্জের থানা পুলিশ কে নিয়ে সরাইল সার্কেলে নিয়োজিত মোঃ মনিরুজ্জামান ফকির রিফাত এর বাড়ির এক প্রতিবেশীর বাসার ছাদের টয়লেটের কাছ থেকে ব্যাগ বন্ধী লাশ উদ্ধার করে। লাশ দেখে ধারনা করা হচ্ছে যে, ছোট্ট শিশু রিফাতকে ১০ দিন আগেই গলা টিপে হত্যা করে নির্দয় পশুরা। ছোট শিশু রিফাতকে নিয়ে ঐ পুলিশ অফিসার এর দেওয়া ফেসবুকের ষ্ট্যাটাস
সরি চাচ্চু তোমাকে বাঁচাতে পারলম না
“খড়িয়ালা, আশুগন্জের প্রিয় ছোট্ট সোনা রিফাত, তোমাকে উদ্ধারের জন্য সারা সপ্তাহ চেষ্টা করেও তোমার শেষ রহ্মা করতে পারলাম না। আশুগন্জ থানার অফিসারদের প্রচেষ্টায় কয়েক জেলা অভিযান করে এবং তদন্তের বিভিন্ন ক্লু ধরে যখন সন্দেহভাজন তিন জনের দুইজন কে গ্রেফতার করলাম তখনও ভেবেছিলাম হয়ত তোমাকে তোমার মা বাবার কোলে দিয়ে আসতে পারব। কিন্তুু আমাদের কাছে তোমার নিখোঁজের খবর আসার অনেক আগেই তোমাকে সামান্য কিছু টাকার লোভে অপহরন করে জানাজানির ভয়ে মাত্র দুই ঘন্টার ব্যবধানে গলা টিপে হত্যা করে নির্দয় পশুরা। আজকে যেখানে তোমার কাধে স্কুল ব্যাগ থাকার কথা, সেখানে তোমাকেই নিথর হয়ে ব্যাগ বন্দি থাকতে হলো এই শীতে দশদিন দশরাত। তোমার হত্যাকারীদের আমরা ছাড়িনি সোনা। সকল আলামত প্রমানসহ ওদের আমরা গ্রেফতার করেছি। ওদের সাজা হবেই, হতেই যে হবে। না হলে আমরা তোমার কাছে বড্ড ছোট হয়ে যাব যে। তোমার পরিবারকে সান্তনা দেবার ভাষা নেই শুধু দুফোটা অশ্রু ছাড়া।
ইতি তোমার পুলিশ চাচ্চু।



এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি
Designed By Linckon