১৯শে ডিসেম্বর, ২০১৭ ইং, মঙ্গলবার, ৫ই পৌষ, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ



ঢাকা ১৮ আসনের জনসাধারনের আস্থার ঠিকানা এড্যভোকেট সাহারা খাতুন


প্রকাশিত :২২.১১.২০১৭, ৫:৪২ অপরাহ্ণ

ঢাকা ১৮ আসনের জনসাধারনের আস্থার ঠিকানা এড্যভোকেট সাহারা খাতুন

আওয়ামিলীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য সাবেক স্বরাষ্ট, ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রি এড্যভোকেট সাহারা খাতুনকে এমপি হিসেবে পেয়ে এলাকাবাসী গর্বিত । সাবেক মন্ত্রি ও বর্তমান এমপি হওয়া স্বত্বেও ‍তার অহংকার নেই, কোন লোভ-লালসা নেই্। দিন রাত তার দরজা জনগনের জন্য খোলা। খাওয়া দাওয়া ঘুম ভুলে এলাকাবাসীর সুখ দুঃখের কথা শুনেন ও যথা সম্ভব সমস্যা সমাধান করতে চেষ্ঠা করেন । ধনী গরিবের ভেদাভেদ না করে জন্ম, মৃত্যু, বিবাহ বা বিপদগ্রস্থ জনসাধারনের পাশে দাড়াতে ছুটে যান। এই জন্য এড্যভোকেট সাহারা খাতুনকে মা, মাটি ও মানুষের নেতা বলা হয় । এলাকার উন্নয়ন যেমন; রাস্তা-ঘাট, স্কুল-কলেজ, মসজিদ-মাদ্রাসা, মন্দির, হাসপাতাল উন্নয়নে তিনি অগ্রনী ভুমিকা রেখেছেন। তার নির্বাচনী এলাকার জনসাধারন ছাড়াও দেশের দুর-দুরান্ত থেকে আগত মানুষের জন্যও তিনি নিবিদিত প্রান ।

এডভোকেট সাহারা খাতুন বলেন, রাজনীতি করি জনগনের সেবার জন্য, দেশের সেবার জন্য বিলাসিতার জন্য নয় । সুতরাং একজন মানুষ তিনি কোথাকার দেখার বিষয় না্ । মানুষ মানুষের জন্য, তাদের জন্য ভালকিছু করতে পারাটাই আমার রাজনীতির স্বর্থকতা । জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর আর্দশকে ধারন করে, বিশ্ব শান্তি ও মানবতার প্রতিক জননেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আস্থাভাজন হয়ে থাকতে চাই। শেখ হাসিনা শুধু এই দেশের জনগনের শান্তির কথাই ভাবেন না, সারা বিশ্বের শান্তির কথা চিন্তা করেন। শেখ হাসিনার নীতি ও আর্দশ থেকে আমাদের ও বিশ্ব নেতাদের অনেক কিছু শিখার আছে।

এদিকে জাতীয় সংসদ নির্বাচনে মনোনয়ন প্রশ্নে এবারও আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য ও সাবেক মন্ত্রী এডভোকেট সাহারা খাতুনের প্রতিদ্বন্দ্বী বা চ্যালেঞ্চ নেয়ার মত নেত্রীত্ব ঢাকা-১৮ আসনে নেই বলে এলাকাবাসী মনে করেন ।সূত্র মতে, এলাকাবাসীও আগামী নির্বাচনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন এডভোকেট সাহারা খাতুন পাবেন বলে মনে করেন। অপর দিকে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশি থানা বা নগর পর্যায়ের নেতাদের কাউকে মনোনয়ন দিলে দলীয় কোনদল সহ তৃণমূল নেতাকর্মী ও অঙ্গ সংগঠনের নেতা কর্মীরা বহু ভাগে বিভক্ত হবেন বলে তারাও মনে করেন। দল ও এলাকাবাসীর স্বার্থে, নিঃস্বার্থ রাজনীতিবিদ এডভোকেট সাহারা খাতুনের হাতেই নৌকা প্রতীক শোভা পাবে বলে ঢাকা-১৮ আসনের জনসাধারন আশাবাদী। তারা বিশ্বাস করেন বর্তমান সংসদ সদস্য এডভোকেট সাহারা খাতুন সব সময় পাশে থেকে সেবা করে যাবেন। তিনি এমপি, আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য ও সাবেক মন্ত্রী হওয়ায় এলাকাবাসীর সমস্যা দ্রুত সমাধান করতে পারেন।

তিনি বাংলাদেশ আওয়ামী আইনজীবী পরিষদের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি ছিলেন। বর্তমানে তিনি বঙ্গবন্ধু আওয়ামী আইনজীবী পরিষদের যুগ্ন আহব্বায়ক এবং বাংলাদেশ মহিলা সমিতির সাধারণ সম্পাদক হিসাবে দীর্ঘ দিন কাজ করেছেন, এছাড়াও তিনি আন্তর্জাতিক মহিলা আইনজীবী সমিতির সদস্য। বর্তমানে তিনি বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্টে একজন প্রথিত যশা আইনজীবী। সাহারা খাতুন মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর সহযোগিতায় ঢাকা-১৮ আসনে বঙ্গবন্ধুর নামে একটি সরকারী কলেজ করেছেন। বঙ্গমাতার নামে একটি সরকারী হাই স্কুল করেছেন। তাছাড়া কুয়েত মৈত্রী বাংলাদেশ সরকারী হাসপাতাল করেছেন। সাহারা খাতুন ছাত্র জীবনেই রাজনীতিতে যুক্ত হন। তিনি বাংলাদেশ সরকারের প্রথম মহিলা স্বরাষ্ট্র মন্ত্রী, এবং ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী নির্বাচিত হয়েছিলেন। তিনি হলেন কল্যাণমূলক রাজনীতির অগ্রদূত, শেখ হাসিনার প্রিয় ব্যক্তি ও আস্থাভাজন ।



এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি
Designed By Linckon