২৩শে নভেম্বর, ২০১৭ ইং, বৃহস্পতিবার, ৯ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ



বঙ্গবন্ধুর নাতনি টিউলিপ সিদ্দিক আবারও জিতলেন যুক্তরাজ্যে


প্রকাশিত :০৯.০৬.২০১৭, ৫:১৭ অপরাহ্ণ

FB_IMG_1497006825967বঙ্গবন্ধুর নাতনি টিউলিপ সিদ্দিক আবারও জিতলেন যুক্তরাজ্যে। এবার ভোটের ব্যবধান বেড়েছে দশগুণেরও বেশি। ২০১৫ সালের নির্বাচনে টিউলিপের জয়ের ব্যবধান ছিল এক হাজার ১৩৮ ভোট। দুইবছর পর বৃহস্পতিবারের ভোটে তিনি জিতেছেন ১৫ হাজার ৫৬০ ভোটের ব্যবধানে।

লন্ডনের হ্যাম্পস্টেড অ্যান্ড কিলবার্ন আসন থেকে লেবার পার্র্টির প্রার্থী টিউলিপ পেয়েছেন ৩৪ হাজার ৪৬৪ ভোট। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী কনজারভেটিভ দলের প্রার্থী ক্লেয়ার লুইচ লিল্যান্ড পেয়েছেন টিউলিপের অর্ধেক ভোট। তার পক্ষে রায় দিয়েছেন মাত্র ১৮ হাজার ৯০৪ জন।

এই আসনটিকে লন্ডনের প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ আসন হিসেবে ধরা হচ্ছিল। গতবারের নির্বাচনে দুই প্রার্থী প্রায় সমান ভোট পাওয়া আসনটি ছিনিয়ে নেয়ার স্বপ্নও দেখছিল ক্ষমতাসীন কনজারভেটিভরা। কিন্তু টিউলিপ দেখিয়ে দিলেন রাজনীতিতে আরও দক্ষ, পরিণীত ও জনপ্রিয় হয়েছেন।

2017-06-09-18-33-02-টিউলিপের জয়ে দারুণ উৎফুল্ল লন্ডনের প্রবাসী বাংলাদেশিরা। তার মা বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ রেহানা মেয়েকে ফুল দিয়ে অভিনন্দন জানিয়েছেন। সেই সঙ্গে অভিনন্দন জানাচ্ছেন প্রবাসী বাংলাদেশি ও লেবার পার্টির নেতা কর্মীরা।

টিউলিপও এই জয়ে অভিনন্দন জানিয়েছেন তার সমর্থক ও শুভানুধ্যায়ীদের। বলেছেন এলাকার উন্নয়ন ও স্বার্থ রক্ষার পাশাপাশি ব্রিটেন বাংলাদেশিদের কল্যাণে তিনি সর্বাত্মক চেষ্টা করবেন। সেই সঙ্গে বাংলাদেশের স্বার্থ সব সময় তার কাছে থাকবে সর্বোচ্চ অগ্রাধিকার হিসেবে।

যুক্তরাজ্যে সদ্য ভেঙে দেওয়া পার্লামেন্টে যে তিনজন ব্রিটিশ-বাংলাদেশি এমপি ছিলেন, তাদের মধ্যে অন্যতম টিউলিপ। গত বুধবার এ বিষয়ে বিবিসি বাংলায় প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, হ্যাম্পস্টেড অ্যান্ড কিলবার্ন আসনটি বার বার হাতবদল হয়েছে লেবার এবং কনজারভেটিভ পার্টির মধ্যে।

গতবার টিউলিপ জিতেছিলেন মাত্র এক হাজার ১৩৮ ভোটে। এ ছাড়া অভিবাসনবিরোধী কট্টর ডানপন্থি দল ইউকিপ গত নির্বাচনে এই আসনে পেয়েছিল প্রায় দেড় হাজার ভোট। কিন্তু তারা এবার প্রার্থী না দেওয়ায় দলটির ভোট কট্টরপন্থিদের বাক্সে যাবে বলে আশঙ্কা করছেন টিউলিপ সমর্থকরা। কিন্তু সে আশঙ্কা উড়িয়ে দিলেন বঙ্গবন্ধুর নাতনি।

FB_IMG_1496977070840টিউলিপ ছাড়াও গতবারের বিজয়ী দুই বাংলাদেশি রুপা হক ও রুশনারা আলী সহজ জয় পেয়েছেন তীব্র প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ জাতীয় নির্বাচনে। তারা তিনজনই লেবার পার্টির সদস্য। লেবার পার্টি নির্বাচনে সংখ্যা না পেরেও তিন বাংলাদেশি ব্রিটিশ দেখিয়েছেন চমক। তিনজনই ভোটের ব্যবধান বাড়িয়েছেন, অনেক বেশি ভোটে হারিয়েছেন তাদের প্রতিদ্বন্দ্বী কনজারভেটিভ দলের প্রার্থীদের।



এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি
Designed By Linckon