২৪শে নভেম্বর, ২০১৭ ইং, শুক্রবার, ১০ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ
  • প্রচ্ছদ » ইসলাম ধর্ম » দক্ষিণ কোরিয়ার দেজন সিটিতে বাংলাদেশি ছাত্রদের উদ্যোগে মসজিদ নির্মাণ কাযক্রম গ্রহন।



দক্ষিণ কোরিয়ার দেজন সিটিতে বাংলাদেশি ছাত্রদের উদ্যোগে মসজিদ নির্মাণ কাযক্রম গ্রহন।


প্রকাশিত :০৯.০৫.২০১৭, ১১:৩৭ অপরাহ্ণ

দক্ষিণ কোরিয়ার দেজন সিটিতে বাংলাদেশি ছাত্রদের উদ্যোগে মসজিদ নির্মাণ কাযক্রম গ্রহন।
central-mosque-seoul-1280x800
এশিয়া মহাদেশের অন্যতম সমৃদ্ধ একটি দেশ দক্ষিণ কোরিয়া। দেশটি তাদের বিভিন্ন কল কারখানার কর্মী চাহিদা পূরণ এর লক্ষ্যে কোরিয়ান সরকার তাদের শ্রম মন্ত্রণালয়ের এইচআরডির মাধ্যমে বিভিন্ন দেশ থেকে শ্রমিক নেওয়ার জন্য একটি সিস্টেম চালু করে যার নাম হল ইপিএস (এমপ্লয়মেন্ট পারমিট সিস্টেম)।

এই সিস্টেমের আওতায় ১৫টি দেশ থেকে সরকারি ব্যবস্থপনায় ২০০৮সাল থেকে শ্রমিক নেওয়া হচ্ছে।
শিক্ষা ক্ষেত্রেও দক্ষিণ কোরিয়া অনেক এগিয়ে,
বিভিন্ন দেশের শিক্ষার্থীদের জন্য পর্যাপ্ত স্কলারশিপ এর ব্যবস্থা থাকায় এই দেশটার প্রতি বিভিন্ন দেশের শিক্ষার্থীদের আগ্রহের কমতি নেই। তারই ধারাবাহিকতায় গত কয়েক বছরে অসংখ্য শিক্ষার্থী এবং কর্মী এই দেশটিতে আসেন। বাংলাদেশও তা থেকে বাদ যায় নি।
দেজন তাদের মধ্যে একটি উল্লেখযোগ্য শহর।
এই শহরে বর্তমানে বাংলাদেশ,পাকিস্তান,মালয়েশিয়া, ইন্দোনেশিয়া,ভারত সহ বিভিন্ন দেশের প্রায় দুইশত এর অধিক মুসলিম শিক্ষার্থী এবং শ্রমিক রয়েছেন কিন্তুু পুরো শহরে মসজিদের সংখ্যা মাত্র ২টি, একটি সকল মুসলিম দেশ গুলো ব্যবস্থাপনায় পরিচালিত হচ্ছে যা চুংনাম জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় এর পাশে অবস্থিত এবং অন্যটি ইন্দোনেশিয়ান মুসলিম ভাইদের সার্বিক প্রচেষ্টায় ওনহেয়দং নামক স্থানে অবস্থিত।
কিন্তুু দেজন শহরের মধ্যবর্তী স্থান এ মুসল্লিদের জন্য কোনো মসজিদ নেই, এখানকার মুসল্লিদের এই দুইটি মসজিদে যাতায়ত করতে দীর্ঘ সময় এর প্রয়োজন হয় তাই বাংলাদেশি ছাত্রদের উদ্যোগে সকল দেশের মুসলমান ভাইদের নামাজ পড়ার সুবিদার্থে হান্মাম বিশ্ববিদ্যালয় এর পাশে হুংদদং নামক স্থানে নতুন মসজিদ নির্মাণ কার্যক্রম গ্রহণ করা হয়েছে। তারই লক্ষ্যে গত ১ই মার্চ একটি কার্যনির্বাহী সভা এর মাধ্যমে সকল সদস্যের মতামতের ভিত্তিতে, কামরুল হাসান কে সভাপতি,মো:তরিকুল ইসলাম আপন কে সাধারন সম্পাদক এবং মো:আমিনুর রহমানকে কোষাধক্ষ্য করে ৮ সদস্য বিশিষ্ট মসজিদ পরিচালনা ও নিমার্ণ কমিটি গঠন করা হয়েছে।
উক্ত কমিটির সভাপতি কামরুল হাসান জানান, বর্তমানে এই এলাকায় অনেক মুসলিম শিক্ষার্থী রয়েছে সকল মুসলিম ভাইদের জামাত এর সাথে নামাজ পড়ার কথা মাথায় রেখে আমরা আল্লাহর ঘর নির্মাণ করার পরিকল্পনা নিয়েছি। আমরা প্রথমে আমাদের নিজেদের অর্থায়নের মাধ্যমে আপাদত ছোট আকারে মসজিদ নির্মাণের পরিকল্পনা নিয়েছি। আমরা খুব শীঘ্রই বাংলাদেশ কমিউনিটি ইন কোরিয়ার সকল নেতৃবৃন্দের সাথে যোগাযোগ করে ওনাদের সময় অনুযায়ী একটা সভা করে আমাদের সকল কার্যক্রম তুলে ধরবো।
এই বিষয়ে কমিটির সাধারণ সম্পাদক এবং দেজন প্রতিনিধি তরিকুল ইসলাম আপন বলেন, আগামী পহেলা রমজান থেকে আমরা আমাদের মসজিদের কার্যক্রম শুরু করবো ইনশাআল্লাহ। এই ব্যাপারে আমাদের এই শহরের মুসলিম কমিউনিটির সাথে আলোচনা করেছি এবং তাদের দিক নির্দেশনা চেয়েছি। আমরা আশা রাখছি যেহেতু কোরিয়ান সরকার মুসলমানদের ধর্মীয় কাজে সম্পূর্ণ স্বাধীনতা দিয়ে যাচ্ছেন এবং ইতিমধ্যে অনেক গুলো মসজিদ এর অনুমতি দিয়েছেন সুতরাং আমরাও আশাবাদী ইনশাআল্লাহ আমরা আমাদের মসজিদ গঠনে সফল হবো। আমরা বাংলাদেশ দূতাবাস এবং বাংলাদেশ কমিউনিটি ইন কোরিয়ার সহযোগীতা কামনা করবো।

032867500_1435123771-header_islam_di_korea_mamahostel_dot_dothome_dot_co_dot_krমসজিদ পরিচালনা এবং নির্মান
কমিটির অন্য সদস্যরা হলেন,মো:জাহিদ হাসান,আল জাকারিয়া,মো: আরেফিন, সাইফুল খন্দকার,মো:আলামিন।



এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি
Designed By Linckon